“ভারতীয় ভ্যারিয়েন্ট বহনকারী ইউনুস আলী করোনা মুক্ত”

মাহমুদুল হাসান,চাঁদপুর প্রতিনিধি
যশোর হাসপাতাল থেকে পালানো ভারতের করোনা ভ্যারিয়েন্ট বহনকারী চাঁদপুর, ফরিদগঞ্জ উপজেলার ইউনুস আলীর করোনা মুক্ত হয়েছেন। তবে তার সঙ্গে থাকা ফুফু হাজেরা বেগমের (৬০) রিপোর্ট পজিটিভ এসেছে।
গত বুধবার (১৯ মে) রাতে তাকে ফরিদগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ শহীদ হোসেনের নেতৃত্বে চাঁদপুরের বিপনীবাগ এলাকা থেকে উদ্ধার করে পুলিশ। এসময় তার সঙ্গে থাকা মা, ফুফু ও ফুফাতো বোনকে পুলিশি পাহারায় উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আইসোলেশন ওয়ার্ডে রাখা হয়। তিনি ১৪ নং ফরিদগঞ্জ দক্ষিণ ইউনিয়নের চররামপুর গ্রামের বাসিন্দা। বৃহস্পতিবার (২০ মে) সকালে করোনা পরীক্ষার জন্য তার ও পরিবারের সদস্যদের নমুনা আবারো সংগ্রহ করা হয়। এরমধ্যে ইউনুস গাজীসহ বাকিদের রিপোর্ট নেগেটিভ আসলেও তার ফুফুর রিপোর্ট পজেটিভ আসে। বর্তমানে তারা সবাই স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আইসোলেশন ওয়ার্ডে রয়েছেন। বিষয়টি নিশ্চিত করেন ফরিদগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের সহকারী সার্জন ডা. কামরুল ইসলাম। জানা যায়, গত ১৩ মে যশোর হাসপাতাল থেকে ভারতের করোনা ভ্যারিয়েন্টে আক্রান্ত ইউনুছ আলী পালিয়ে যান। পরে থেকে তাকে অনেক খোঁজাখুঁজি করেও পাওয়া যায়নি।
ফরিদগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের সহকারী সার্জন ডা. কামরুল ইসলাম বলেন, বৃহস্পতিবার সকালে তাদের নমুনা চাঁদপুর সরকারি জেনারেল হাসপাতালে পাঠানো হয়। এরমধ্যে হাজেরা খাতুনের রিপোর্ট পজেটিভ এসেছে। ফরিদগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ শহীদ হোসেন বলেন, তাকে ও পরিবারের সদস্যদেরকে স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে আইসোলেশন ওয়ার্ডে পুলিশি পাহারায় রাখা হয়েছে। চাঁদপুর সিভিল সার্জন ডা. মো. সাখাওয়াত উল্ল্যাহ জানান, বিষয়টি আমি জানতে পেরেছি। এদের মধ্যে একজনের করোনা রিপোর্ট পজিটিভ এসেছে। নমুনাটি ঢাকায় পাঠানোর ব্যবস্থা করছি। এটি ভারতীয় করোনা ভ্যারিয়েন্ট বহনকারী কি-না তা নিশ্চিত হওয়ার জন্য।
  • Save
Rover sent Today at 8:03 AM
Open Photo
  • Save