ফুটবলে মেয়েরা বাংলাদেশকে সম্মান এনে দিচ্ছে: প্রধানমন্ত্রী

ফাইল ছবি

অনলাইন ডেস্কঃ

সিনিয়র পর্যায়ে খেলোয়াড়দের পারফরম্যান্স অনেকটা মলিন হলেও অনূর্ধ্ব বিভিন্ন বয়স পর্যায়ের মেয়েরা বাংলাদেশের হয়ে ভালো খেলছে। গত বছর অনূর্ধ্ব-১৯ নারী সাফ চ্যাম্পিয়নশিপে চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী ভারতকে হারিয়ে শিরোপা জিতেছিল মারিয়া মান্ডার দল।

২০১৮ সালে অনূর্ধ্ব-১৮ নারী সাফ চ্যাম্পিয়নশিপেও বাংলাদেশ শিরোপা ঘরে তুলে। এসব অর্জনকে হাইলাইট করে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, ফুটবলে মেয়েরা আমাদের সাফল্য এনে দিচ্ছে।
রোববার (১৯ জুন) গণভবনে সাফের শিরোপা জয়ী অনূর্ধ্ব-১৯ নারী দলকে সংবর্ধনা ও অর্থ সম্মাননা প্রদান অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী এ কথা বলেন। তিনি জানান, প্রতিযোগিতা করে আমাদের মেয়েরা ওঠে আসছে। ফুটবলে মেয়েরা (বাংলাদেশের) অনেক ভালো। তারা আমাদের সম্মান এনে দিচ্ছে। এ জন্য আন্তঃবিশ্ববিদ্যালয় ও আন্তঃকলেজভিত্তিক প্রতিযোগিতা বেশি বেশি আয়োজন করতে হবে। সেখান থেকে আমরা জাতীয় দলের জন্য খেলোয়াড় বেছে নিতে পারব। ফুটবলের পাশাপাশি এটা অন্য খেলাগুলোর জন্যও প্রযোজ্য।
প্রধানমন্ত্রী আরও বলেন, বাংলাদেশের নারী দল ভালো করছে। ওরা ওয়ানডে স্ট্যাটাস অর্জন করেছে। এটা অনেক বড় অর্জন বলে আমি মনে করি। তবে ফুটবল খেলাটা সবচেয়ে বেশি জনপ্রিয়। এ জন্য আমরা আন্তঃস্কুল প্রতিযোগিতার ব্যবস্থা নিয়েছি। ছেলেদের জন্য বঙ্গবন্ধু আন্তঃস্কুল প্রতিযোগিতা ও মেয়েদের জন্য বঙ্গমাতা আন্তঃস্কুল প্রতিযোগিতা হয়ে থাকে।

অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী দেশীয় খেলা আরও বেশি জনপ্রিয় করে তোলার পরামর্শ দেন। তিনি বলেন, এখনকার ছেলেমেয়েরা ডাংগুলি, হাডুডু তো ভুলতে বসেছে। এসব খেলা তারা খেলেনি। আমরা খেলেছি। ডাংগুলিটা ভালো খেললে বেসবলটাও ভালো খেলতে পারবে।
প্রতিটি জেলা-উপজেলায় মিনি স্টেডিয়াম নির্মাণের কথাও জানান শেখ হাসিনা। তিনি বলেন, প্রত্যেকটি জেলা-উপজেলায় যাতে খেলা ভালোভাবে চলে সে জন্য মিনি স্টেডিয়াম নির্মাণ করা হবে। মিনি স্টেডিয়াম সুনির্দিষ্ট কোনো খেলার জন্য না, সব ধরনের খেলার জন্য। ক্রিকেট স্টেডিয়ামে ফুটবল খেলার আয়োজন করা যেতে পারে। ক্রিকেট খেলার জন্য পিচটা অনেক গুরুত্বপূর্ণ। সেটিকে সুরক্ষিত রেখে একপাশে ফুটবলও খেলা যেতে পারে।

আরো পড়ুন>>.পদ্মা সেতু নির্মাণে সংশ্লিষ্ট সবার সাথে ছবি তুলবেন প্রধানমন্ত্রী।