অল্প খরচেই বারান্দা সাজিয়ে ফেলুন আকর্ষণীয় ভাবে।

অল্প খরচেই বারান্দা সাজিয়ে ফেলুন আকর্ষণীয় ভাবে।
অল্প খরচেই বারান্দা সাজিয়ে ফেলুন আকর্ষণীয় ভাবে।

লাইফস্টাইল ডেস্কঃ 

আপনার বাড়ির বারান্দাই আনন্দের জায়গা হয়ে উঠতে পারে। সারাদিনের একঘেয়েমি কাটাতে পারেন এখানেই। তার জন্য় একটু পরিশ্রম তো আপনাকে করতেই হবে। এখন আপনি ভাবছেন যে কী করা যেতে পারে? আসলে আপনার বারান্দাকে নতুন করে সাজিয়ে ফেলতে পারেন আপনি। তখন আপনার বারান্দাই আপনার মন ভালো করে দিতে পারে। হয়তো সারাদিন খুব কাজের চাপ গিয়েছে। সন্ধ্যায় বাড়ি ফিরে আপনি এক কাপ চা নিয়ে এই বারন্দাতেই এসে বসলেন।

তখন মন ভালো হয়ে যেতে পারে। পছন্দের গান চললে তো আর কথাই নেই। যাই হোক, এই বারান্দায় সুন্দর ফ্লোর ম্যাট পাততে পারেন আপনি। আলো দিয়েও সাজিয়ে ফেলতে পারেন। খুব সুন্দর লাগে দেখতে। খুব কম খরচেই বারান্দা সাজিয়ে ফেলবেন কীভাবে? বারান্দা সাজানোর টিপস নোট করে নিন ঝটপট
বারান্দায় থাক পছন্দের গাছ

আপনি বারান্দায় দাঁড়িয়ে চিন্তামুক্ত হতে চান? তাহলে আপনার বাড়ির গ্রিন জোন বানিয়ে ফেলুন এই বারান্দাকেই। তার জন্য খুব খাটনির প্রয়োজন নেই। সামান্য মেকওভারের প্রয়োজন আছে। আপনি সেভাবেই সাজিয়ে ফেলুন আপনার বাড়ির বারান্দা। বারান্দায় পছন্দের গাছ দিয়ে সাজিয়ে রাখুন।

বিভিন্ন ইন্ডোর প্ল্যান্ট রাখতে পারেন। আউটডোর প্ল্যান্ট বা ফুলগাছ দিয়েও সাজাতে পারেন। পিটুনিয়া, নয়নতারার মতো গাছ রাখতে পারেন বারান্দায়। এদিকে আপনি যদি ইন্ডোর প্ল্যান্ট রাখতেই চান, তাহলে সেখানে জেড প্ল্যান্ট, মানি প্ল্যান্ট, স্নেক প্ল্যান্টের মতো গাছ রাখতে পারেন। এই ধরনের গাছ বারান্দায় রাখলে বাতাসও পরিশুদ্ধ থাকে। দেখতেও সুন্দর লাগে।

বারান্দার দেওয়াল

বারান্দার দেওয়াল সুন্দর করে সাজাবেন। বারান্দার দেওয়ালে রঙিন ও উজ্জ্বল রঙ করুন। হলুদ, সবুজ, আকাশি, গোলাপির মতো রঙকে বেছে নিতে পারেন। একই ধরনের রঙ করাতে পারেন। নাহলে ওয়াল পেন্টও করাতে পারেন আপনি। দেখতে সুন্দর লাগে। কীভাবে সাজাবেন? ওয়াল পেন্ট করান।

কোনও ইনস্পিরেশনাল কোট লিখতে পারেন। গাছের ছবি আঁকতে পারেন। এছাড়াও নানা ছবি আপনি ফ্রেম করে দেওয়ালে ঝোলাতে পারেন। সরা-পেন্ট দেওয়ালে লাগাতে পারেন। দেখতে ভালো লাগে। আর এই ধরনের ডেকরে খরচও কম এবং ট্রেন্ডিং। (ছবি- পেক্সেল)

ফ্লোর ম্যাট

বারান্দার লুক সম্পূর্ণ বদলে ফেলতে চাইলে ফ্লোরে অবশ্যই নজর দিন। আপনি ফ্লোরে ম্যাট পাতুন। বারান্দায় পাতার জন্য একটু অন্য ধরনের ম্যাট বেছে নেবেন। গ্রাস ম্যাট কিনতে পারেন। প্লাস্টিক ম্যাট হলে বেশি ভালো হয়। বারান্দায় যদি বৃষ্টির জল আসার সম্ভাবনা থাকে, তাহলে আপনি কাপড়ের ফ্লোর ম্যাট এড়িয়ে যান। (ছবি- পেক্সেল)

ছোট ছোট ডিটেলিং

ছোট ছোট ডিটেলিংও আপনার বারান্দার লুক সম্পূর্ণ বদলে দেয়। অন্যরকম দেখতে করে তোলে। সেই জন্য আপনাকে এই দিকটিও লক্ষ্য দিতে হবে। কী করবেন আপনি? শো পিস রাখতে পারেন। দেখতে সুন্দর লাগে। আর্টিফিশিয়াল ফোয়ারা রাখতে পারেন। এছাড়া অনেকেই বারান্দায় দোলনা ঝোলান।

আপনার বারান্দা যদি একটু বড় হয়,তবে আপনি বারান্দায় দোলনা লাগাতে পারেন সহজেই। সিটিং অ্যারেঞ্জমেন্টে নজর দিন। এমন আসবাব রাখবেন না, যা জলে খারাপ হতে পারে। কিংবা বৃষ্টির ছাঁট আসে, এরকম জায়গায় আসবাব রাখবেন না। আপনি একটি সেন্টার টেবিল ও দুটি চেয়ার দিয়ে সাজিয়ে রাখতে পারেন বারান্দা।(ছবি- পেক্সেল)

এই ঘরোয়া টোটকায় বাথরুমের দুর্গন্ধ হবে দূর, এক পয়সাও খরচ হবে না!

আলো

আলো কিন্তু একটি ঘরের বা বারান্দার সম্পূর্ণ লুক বদলে দিতে পারে। আপনি যদি বারান্দায় ভিন্টেজ লুক দিতে চান, তাহলে সেরকম আলো লাগান। লণ্ঠন লাগাতে পারেন। লণ্ঠনে বৈদ্যুতিন বাল্ব লাগিয়ে নিন। খুব সুন্দর দেখতে লাগে। এছাড়াও নানারকম মডার্ন লাইটও লাগাতে পারেন বারান্দায়। বিভিন্ন ই-কমার্স ওয়েবসাইটে পেয়ে যাবেন এই ধরনের আলো। এছাড়াও ফেয়ারি লাইট লাগাতে পরেন। কম খরচে হয়ে যাবে বারান্দা সাজানো।

বারান্দাকে মনের মতো করে সাজিয়ে নিন। সবুজের ছোঁয়া থাকুক। বসার জায়গাও হোক সুন্দর। সন্ধ্যায় চায়ের কাপ হাতে বারান্দায় বসলে বা ছুটির দিন বিকেলগুলোই অন্যরকম হয়ে যাবে। দেখবেন

আরও পড়ুনঃ ত্বকে জেল্লা ফেরাতে ঘি খাওয়ার অবদান।