হঠাৎ মারিওপোলে যুদ্ধবিরতি ঘোষণা রাশিয়ার

মারিওপোলে যুদ্ধবিরতি ঘোষণা করেছে রাশিয়া

আন্তর্জাতিক ডেস্ক:
ইউক্রেনের বন্দরনগরী মারিওপোলে যুদ্ধবিরতি ঘোষণা করেছে রাশিয়া। শহরটি থেকে বেসামরিক নাগরিকদের সরিয়ে নিতে যুদ্ধবিরতি ঘোষণা করে মস্কো। খবর আল জাজিরার। খবরে আরো বলা হয়, মারিওপোল থেকে বেসামরিক নাগরিকরা যেন নিরাপদে সরে যেতে পারেন সে জন্য রাশিয়ার প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় স্থানীয় পর্যায়ে যুদ্ধবিরতির ঘোষণা দিয়েছে।

মন্ত্রণালয় জানায়, মারিওপোল থেকে রাশিয়া নিয়ন্ত্রিত বন্দর বেরদিয়ানস্ক হয়ে জাপোরিঝিয়া পর্যন্ত একটি মানবিক করিডোর বৃহস্পতিবার স্থানীয় সময় সকাল ১০টায় খোলা হবে। মন্ত্রণালয়ের বিবৃতিতে বলা হয়, মানবিক এ কার্যক্রমের সফলতার জন্য জাতিসংঘ শরণার্থী বিষয়ক হাইকমিশনার ও ইন্টারন্যাশনাল কমিটি অব দ্য রেডক্রসের প্রত্যক্ষ অংশগ্রহণে আমরা এটি বাস্তবায়নের প্রস্তাব করছি। যুদ্ধবিরতিকে ‘নিঃশর্তভাবে সম্মান’ করার বিষয়টি রুশ কর্তৃপক্ষ, ইউএনএইচসিআর, আইসিআরসি-কে লিখিতভাবে জানাতেও কিয়েভের প্রতি আহ্বান জানিয়েছে রাশিয়ার প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়।

এর আগে রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন জানিয়েছিলেন, ইউক্রেনের সেনারা আত্মসমর্পণ করলেই মারিওপোলে গোলাবর্ষণ বন্ধ হবে। বুধবার ফ্রান্সের প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল ম্যাক্রনকে টেলিফোনে তিনি এ কথা বলেছেন।গত কয়েক সপ্তাহ ধরে মারিওপোলে তীব্র গোলাবর্ষণ করছে রাশিয়া। স্যাটেলাইট থেকে পাওয়া ছবিতে দেখা গেছে, নগরীর দক্ষিণে অবস্থিত প্রধান সমুদ্রবন্দরটি বিধ্বস্ত হয়ে গেছে।

ফরাসি কর্মকর্তারা মারিওপোল শহরের পরিস্থিতিকে ‘বিপর্যয়কর’ বলে অভিহিত করেছেন। তারা জানিয়েছেন, ‘বেসামরিক নাগরিকদের অবশ্যই সুরক্ষা দিতে হবে এবং তারা চাইলে শহর ছেড়ে চলে যাওয়ার সুযোগ দিতে হবে। তাদের অবশ্যই খাদ্য সহায়তা, পানি ও প্রয়োজনীয় ওষুধ প্রাপ্তির সুযোগ নিশ্চিত করতে হবে।’

ফরাসি প্রেসিডেন্টের দপ্তর এলিসি প্রাসাদের কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, ম্যাক্রনের সঙ্গে আলাপকালে পুতিন মারিওপোলের বাসিন্দাদের নিরাপদে সরে যাওয়ার সুযোগ করে দিতে সম্মত হয়েছেন।

আরো পড়ুন: পাকিস্তানে ইমরান সরকারের পতন শুধু সময়ের অপেক্ষা